আফগানিস্তানের বিপক্ষে বল টেম্পারিংয়ের শাস্তি পেল নেদারল্যান্ডস

ক্রিকেট খেলায় বল টেম্পারিং হচ্ছে সেই সব অবৈধ কর্মকাণ্ড যা একজন ফিল্ডার বলের অবস্থা পরিবর্তনের উদ্দেশ্যে করে থাকে।

বল টেম্পারিং-এর পিছনে প্রাথমিক উদ্দেশ্য হচ্ছে ক্রিকেট বলের বায়ুগতিবিদ্যায় হস্তক্ষেপ করা যা একজন বলারকে অবৈধ সুবিধা পেতে সাহয্য করে।

হোয়াইটওয়াশ নেদারল্যান্ডস পেলো এবার বল টেম্পারিংয়ের শাস্তি। আফগানিস্তানের বিপক্ষে হোয়াইট ওয়াশ হয়েছে নেদারল্যান্ডস, তার পাশাপাশি বল টেম্পারিং করার কারণে শাস্তি দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ৭৫ রানের ব্যবধানে হেরেছে নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাটিং করে আফগানিস্তান। আর ফিল্ডিংয়ের সময় বল টেম্পারিং করেন ডাচ ক্রিকেটাররা।

ইনিংসের ৩১তম ওভারে বোলিং করতে আসেন ব্রেন্ডন গ্লোভার। সেই ওভারের পাঁচ বল করার পর আম্পায়ার বল পরিবর্তন করেন। কারণ আম্পায়ার তখন জানতে পারেন এই বলটি টেম্পারিং করা হয়েছে।

এমন অপরাধের জন্য ডাচদের তাৎক্ষণিক শাস্তিও দেন আম্পায়ার। দলকে পেনাল্টি করা হয় ৫ রান। এর ফলে আফগানিস্তানের দলীয় সংগ্রহে অতিরিক্ত ৫ রান যোগ করা হয়।

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে আফগানিস্তান সংগ্রহ করে ২৫৪ রান। জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে ১৭৯ রানে অল আউট হয় নেদারল্যান্ডস।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.